Google Ads Campaign Goal সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন!

Google Ads Campaign Goal

কেনো কিছু ব্র্যান্ড বা কম্পানিগুলো তাদের Google Ads Campaign এর জন্য প্রায় ১০ গুন সুবিধা পেয়ে থাকে এবং কেনো অন্যান্য ব্র্যান্ড বা কম্পানিগুলো বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য সামান্য কিছু ছাড়াই অনেক টাকা নষ্ট করে অথবা হারিয়ে ফেলে? গুগলের সাহায্যে বিজ্ঞাপন প্রচারের অনেকগুলি কারণ রয়েছে তবে তার মাঝে বড় তিনটি কারন হচ্ছে -  লক্ষ্য, কৌশল এবং সম্পাদন

এই একটা পোষ্টের মাধ্যমে আমি বোঝানোর চেষ্টা করবো - Google Ads এর সব ধরনের Goal সম্পর্কে একটা ক্লিয়ার ধারনা দিতে এবং আমার বিশ্বাস এই পোষ্ট আপনার জন্য নতুন কিছু ধারনা নিয়ে আসবে। গুগল বিজ্ঞাপনের জন্যে আগে থেকে ক্যাম্পেইনের Goal গুলো সম্পর্কে ধারনা রাখলে খুব ভালো Ad Management করা যায় তবে ব্যাবসার ধরনের উপর ডিপেন্ড করে মুলত ক্যাম্পেইনের Goal কি হবে। এখন মনে প্রশ্ন হতে পারে - ক্যাম্পেইন বলতে আসলে কি বুঝায়?

{getToc} $title={ Table of Content } 

ক্যাম্পেইন কাকে বলে? (What is Campaign in Google ads)

একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য, কোন একটা নির্দিষ্ট উদ্দেশ্যকে সাধন করার জন্যে আমরা যে এক্টিভিটি গুলো করি সেটাই হচ্ছে মুলত ক্যাম্পেইন। এই ক্যাম্পেইন আমরা অফলাইনেও করতে পারি অথবা অনলাইনেও করতে পারি

সব কিছুরই একটা উদ্দেশ্য থাকে তাইনা? আমি আমার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক নিয়ে আসবো। এটা একটা উদ্দেশ্য হতে পারে। এখন এই উদ্দেশ্য সাধন করার জন্যে একটা ক্যম্পেইন করতে পারি অথবা মনে করুন এই মুহুর্তে আপনার কোন প্রোডাক্টের অফার চলতেছে ২০% এটা নিয়েও একটা ক্যাম্পেইন হতে পারে। মোট কথা কোন হচ্ছে - একটা বিজনেসের কোন একটা উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে আমরা যে প্রচার প্রচারনা করি এটাকে বলা হচ্ছে ক্যাম্পেইন তবে জেনে রাখা ভালো কিছু ক্যাম্পেইন আছে যেগুলো সারা বছর চলে থাকে। এগুলো কে এভারগ্রীন ক্যাম্পেইন বলা হয়ে থাকে 

ক্যাম্পেইনের গোল সমূহ (Google Ads Campaign Goal) 

সত্যি বলতে আপনি কী করছেন সেটা যদি আগে থেকেই জানা থাকে তাহলে আপনি এখানে কি কি করবেন সেটা বিবেচ্য বিষয় নয় তবে প্রযুক্তিগত ভাবে এটা ক্যাম্পেইনের একটা সেটিংস বলা যেতে পারে তাই এখন এগুলো নিয়ে আলোচনা করবো

আপনি যখনি Google Ads এ কোন Campaign তৈরি করবেন তার আগে অবশ্যই সেই ক্যাম্পেইনের একটা উদ্দেশ্য ঠিক করে নিবেন কারন বিজ্ঞাপনের জন্যে Campaign Goal সম্পর্কে যদি আপনার ভালো ধারনা থাকে তাহলে আপনি ক্লাইন্টের কথা শুনেই বুঝতে পারবেন কি ধরনের বিজনেসের জন্য কোন ধরনের Campaign Goal সেট করতে হবে এবং সেটা নিজের ব্যাবসার জন্যও প্রযোজ্য হতে পারে

Google Ads Campaign Goal

Google Ads আপনাকে মোট ৭ টা অপশন দিয়েছে যেখান থেকে আপনাকে যেকোন একটিকে বেছে নিতে হবে আপনার গোল হিসেবে। প্রতিটি ক্যাম্পেইনের লক্ষ্য একটি ভিন্ন নির্দেশিকা ব্যবস্থার প্রতিনিধিত্ব করে থাকে যার লক্ষ্য হচ্ছে আপনাকে আপনার Google ads Campaign কে যেন আরও ভালোভাবে পরিচালনা করতে সাহায্য করে। যদিও একটি গোল বা লক্ষ্য নির্বাচন করা আপনার অ্যাকাউন্টের কার্যকারিতাকে প্রভাবিত করে না। যাইহোক এটি পরবর্তীতে বিজ্ঞাপন বিন্যাসের বিকল্প গুলিকে সীমিত করবে

উপরের দেয়া ছবিতে প্রতিটি Campaign Goal এক একটি বক্স হিসেবে লিস্ট করা আছে আপনি যদি প্রতিটি বক্সে হোভার করেন তাহলে প্রতিটি বক্সের ভিতরে আরো অধিক তথ্য দেখতে পাবেন। তো ক্যাম্পেইনের এই প্রতিটি গোল বা উদ্দেশ্য সম্পর্কে এখন বিস্তারিত আলোচনা করবো

Brand Awareness and Reach

ব্র্যান্ড বা কম্পানিগুলো প্রতিদিন হাজার হাজার বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে অনলাইনে এবং মানুষ এগুলো দেখে থাকে। প্রথমেই মানুষ কোন বিজ্ঞাপন দেখে প্রডাক্ট ক্রয় করার পার্সেন্টিজ হচ্ছে ১.৮৪%। একজন মানুষের গড় মনযোগের সময় এখন গোল্ডফিসের চেয়েও কম মাত্র ৮ সেকেন্ড সেখানে গোল্ডফিসের গড় মনযোগের সময় হচ্ছে ৯ সেকেন্ড। এত কম সময়ের মাঝে মানুষ যেন ব্রান্ড বা প্রডাক্ট সম্পর্কে জানতে পারে এর জন্যই কম্পানি বা ব্র্যান্ড গুলো কিছু স্টেজ বা সেগমেন্ট রাখে তার মাঝে Brand Awareness একটি

একটা কোম্পানি বা ব্র্যান্ড যখন কোন একটা প্রডাক্ট বা সার্ভিস মার্কেটে নিয়ে আসে তখন সেই কোম্পানি বা ব্র্যান্ড গুলো সাধারণত Awareness বা সচেতনতা সৃষ্টি করে থাকে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এবং ভোক্তা বা ক্রেতাদের সামনে যায় ঠিক এই মেসেজ নিয়ে যে, আমি কে এবং আমি কি করি!  

এখানে আর কোন তথ্য থাকে না যে, আমার প্রডাক্ট ক্রয় করো বা আমার ওয়েবসাইটে আসো অথবা আমার মোবাইল এপ্লিকেশন টা তোমার মোবাইলে ইন্সটল করো। এই ব্যাপার গুলো থাকে না যেটা থাকে সেটা হচ্ছে - আমি কে এবং আমি কি করি! উদ্দেশ্য হচ্ছে ব্রান্ডের নাম যেন সেই সব মানুষের মাথায় থেকে যায় এই গড় মনযোগের সময়ের মাঝেই আর এই জন্যই মুলত কোম্পানি গুলো Brand Awareness সৃষ্টি করে থাকে

Product and Brand Consideration

খুব সহজ ভাবে বললে Product Consideration মানে হলো ক্রেতাকে প্রডাক্ট বা সার্ভিস সম্পর্কে একটু ধাক্কা দিয়ে বলা যে, ভাই তুমি আমার প্রডাক্ট বা সার্ভিসটা একটু বিবেচনা করে দেখো অথবা আমার ওয়েবসাইটে এসে দেখো আমার এই প্রডাক্ট বা সার্ভিসটা তোমার জন্য কতটা দরকারী বা তোমার জন্য কি ভ্যালু ক্রিয়েট করছে  

এই সেগেমেন্টে সব সময় প্রডাক্ট বা সার্ভিসের বেনিফিট টাকে ফোকাস করতে হয়। ব্রান্ড বা কম্পানিগুলো সব সময়ে আশা করে তাদের প্রডাক্ট বা সার্ভিস সম্পর্কে ক্রেতাকে ডিটেইল'সে বলার যে, তদের প্রডাক্টে কি কি বেনিফিট আছে এবং কি ধরনের ফিচার রয়েছে। প্রডাক্টের বেনিফিট, প্রডাক্টের ফিচার, রিভিউ টেস্টিমোনিয়াল ফিচার গুলোকে ফোকাস করে ক্যাম্পেইন করতে হয় Product Consideration সেগমেন্টে 

Sales, Leads, এবং Web Traffic এই তিনটা আসলে একই জিনিষ তবে বিজনেসের ধরন অনুযায়ী এগুলো আমারা ব্যবহার করি বিভিন্ন উপায়ে যেমনঃ Sales এর কথাই যদি প্রথমে বলি -  

Sales

এই সেগমেন্টে ক্রেতা ইতোমধ্যে আপনার সম্পর্কে জানে - আপনি কে? আপনি কি করেন? কি কি প্রডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে কাজ করেন এবং ক্রেতা আপনার প্রডাক্ট বা সার্ভিস সম্পর্কেও জানে যদি আমরা উপরের দুইটা সেগমেন্ট Brand Awareness এবং Brand Consideration এর কথাই ধরি

এবার আপনি ডিরেক্ট সেল করতে পারেন। এই সেগমেন্টে আপনি ডিরেক্ট অফার করতে পারেন এভাবে - তুমি যদি আজকের মধ্যে প্রডাক্টটা নাও তাহলে ২০% ডিসকাউন্ট দেয়া হবে। তখন কি হয় - সে আপনার  Brand Awareness সম্পর্কে আগে জেনেছে এখন Brand Consideration এ এসে প্রডাক্ট বা সার্ভিস সম্পর্কে ধারনা নিয়েছে। এখন তার সামনে যদি প্রডাক্টের এই সেল’স স্পিচ বা ডিসকাউন্ট অফার দেয়া হয় তখন সে প্রডাক্টটা ক্রয় করে নিবে কারন তখন ইতোমধ্যে আপনার ব্রান্ড বা কম্পানি সম্পর্কে মানুষ জানে

Leads

ই-কমার্স বিজনেসের ক্ষেত্রে Leads মানে হচ্ছে মনে করুন কোন ট্রাফিক বা ভিজিটর কোন শপিং রিলেটেড ওয়েবসাইটে এসে কোন প্রডাক্টে ক্লিক করে Add to Cart পেইজে আসছে অথবা ট্রাফিক বা ভিজিটর আপনার প্রোডাক্ট পেইজ ভিউ করেছে এই ব্যাপারটাই হচ্ছে Lead. এখন যে সব বিজনেসের ক্ষেত্রে ওয়েবসাইটের সাহায্যে অথবা সরাসরি সেল করা সম্ভব না সেই ক্ষেত্রে Leads Campaign হিসেবে Goal সেট করা হয়ে থাকে তবে Leads Campaign Goal ডিপেন্ড করে বিজনেসের ধরন অনুযায়ী

Leads Campaign হিসেবে Goal সেট করতে হয় মুলত B2B এর ক্ষেত্রে। উদাহরণ হিসেবে - একাউন্টিং সফটওয়্যার এর কথাই বলি। একাউন্টিং সফটওয়্যার কিন্তু কোন ইন্ডিভিজুয়াল ব্যাক্তির দরকার পড়ে না তাইনা? যাদের বিজনেস আছে অথবা কোন বড় প্রতিষ্ঠান আছে তাদের দরকার পড়ে অর্থাৎ আরেকটা বিজনেসের দরকার পড়ে তাইতো?  

তার মানে যিনি একাউন্টিং সফটওয়্যার টা বানাচ্ছে সে নিজে কিন্তু একটা বিজনেস রান করছে এবং যাকে সেল করছে সেও আরেকটা বিজনেস। মনে করুন ইজি-ফ্যাশন নামক কম্পানিতে এই কাউন্টিং সফটওয়্যারটা ব্যাবহার হবে “ইজি-ফ্যাশন এবং তার অন্য আউটলেট গুলোতে” তার মানে সেও আরেকটা বিসনেস এটাই হচ্ছে B2B মানে Business to Business  

তো এই সব বিজনেসের ক্ষেত্রে Sales সাধারণত সাথে সাথেই কমপ্লিট হয় না। “ইজি-ফ্যাশন” আরো ৩/৪ যায়গা থেকে সেইম সফটওয়্যারটা নিবে এটা দেখার জন্য যে কোন কম্পানির সফটওয়্যার সার্ভিস কেমন দেয়? কার ফিচার ভালো? সাপোর্ট কেমন দিচ্ছে? এই ব্যাপারগুলো। তখন যিনি বা যে প্রতিষ্ঠান একাউন্টিং সফটওয়্যার সেল করছে তারা তখন Leads Campaign করে থাকে, এই একাউন্টিং সফটওয়্যারটা অমুক অমুক কম্পানি ব্যাবহার করছে। মোট কথা একাউন্টিং সফটওয়্যারটা যিনি বা যারা বানিয়েছে তারা এটার মুল ফিচার গুলো নিয়ে ক্যাম্পেইন করে থাকে

তখন ইজি-ফ্যাশনের যদি ভালো লাগে সে ওয়েবসাইটে গিয়ে হয়তো একটা ফর্ম পুরন করবে অথবা একটা ফ্রি ডেমোও পেতে পারে। এর পরে কথা বলে ভালো লাগলে তখন এই কাউন্টিং সফটওয়্যারটা ক্রয় করবে। সো বুঝতেই পারছেন অনেক প্রসেস মেইনটেইন করতে হয়। বলা হয়ে থাকে একটা সফল বিজনেসের ক্ষেত্রে Leads কনভার্ট হতে প্রায় ১২ - ১৮ মাস লেগে যেতে পারে। তো এই সমস্থ বিজনেসের ক্ষেত্রে মুলত Leads Campaign হিসেবে Goal সেট করা হয়ে থাকে

Website Traffic

কিছু কিছু মানুষ শুধুমাত্র ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বা ভিজিটর চায়। তখন ক্যাম্পেইনের গোল হিসেবে Website Traffic সিলেক্ট করা যেতে পারে তবে ট্রাফিক বা ভিজিটর নিয়ে আসার জন্য Product and Brand Consideration স্টেজের বেলাতেও Website Traffic হিসেবে গোল সিলেক্ট করা যেতে পারে।   

প্রথমে Brand  Awareness করলেন তারপরে Product Consideration এর পরে Website Traffic করলেন অথবা Product Consideration = Website Traffic ও হতে পারে। মনে করুন, আপনি চাচ্ছেন আপনার বেনিফিট, রিভিউ এই বিষয়গুলো আপনার Ad Campaign এর মাঝে ব্যানার হিসেবে অথবা ইমেজ গ্রাফিক্স এর মাঝে দিয়ে দিলেন। এখন কোন ট্রাফিক বা ভিজিটর যখন সেই ব্যানারে ক্লিক করবে তখন তাকে আপনার ওয়েবসাইটে নিয়ে আসবে এবার এই ট্রাফিক বা ভিজিটর গুলোকে রি-টার্গেট করে পরবর্তীতে আপনি Sales এবং Leads ক্যাম্পেইন চালাতে পারবেন 

আবার কিছু কিছু বিজনেস আছে যেমন - যারা Plumbing Service দিয়ে থাকে অর্থাৎ আপনার বাসা বাড়িতে পানির পাইপ বা কল নষ্ট হয়েছে, ফ্রিজ নষ্ট হয়েছে, বেসিনে প্রব্লেম হয়েছে এই সব সার্ভিস যারা দিয়ে থাকে তারা চায় শুধুমাত্র তাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট আসুক এবং ওয়েবসাইটে দেয়া ফোন নাম্বারে কল দিয়ে সার্ভিস যেন নিতে পারে। মোট কথা হচ্ছে ভিজিটর বা ট্রাফিক ওয়েবসাইটে আসুক সেখানে দেয়া নম্বরে কল দিক এবং সার্ভিস গ্রহন করুক। এই ধরনের বিজনেসের ক্ষেত্রে Website Traffic হিসেবে Goal সেট করা হয়ে থাকে 

App Promotion

App Promotion হচ্ছে মোবাইল অ্যাপের (Mobile App) জন্য একটা বিজ্ঞাপন ক্যাম্পেইন যা আসলে একটা অ্যাপ কে ইন্সটল এবং সেটার ইন-অ্যাপ অ্যাকশনের জন্য আধুনিক ভাবে গ্রাহকদের কাছে পৌঁছাতে ব্যবহার করা হয়। তাই কোন অ্যাপকে প্রমোশন করার জন্য App Promotion এই Goal সিলেক্ট করা হয়। এই অ্যাপে প্রমোশনের ক্ষেত্রে দুইটা বিষয় কাজ করে - 

Install:  এখানে উদাহরণ হিসেবে Pathao App কে নিচ্ছি। মনে করুন আপনি একটা App Launch করলেন এখন আপনি চাচ্ছেন যে ১০,০০০ মানুষ এই App টা Install করুক। যেমনটা Pathao App করেছে; এরা প্রথমে এসে আগে সবাইকে তাদের App কে Install করিয়েছে। তাই প্রথম ধাপ হচ্ছে Install প্রসেস

In App Activity: এই সেগমেন্টে অ্যাপের মধ্যে কার্যকলাপ কে বোঝায়। যেমনঃ দেখবেন সকাল বেলা অফিসে যাবার সময়ে আমি বা আপনি Pathao বা Uber নিয়ে নাড়াচাড়া করি। আপনি একদিন এই অ্যাপ নাড়াচাড়া করবেন না অথবা আপনি Pathao টা ওপেন করে Uber এ রাইড নিয়ে চলে গেলেন দেখবেন Pathao ইন্সট্যান্ট আপনাকে মেসেজ দিয়ে দিবে - আজকে যদি রাইড নাও তাহলে ৩০% ডিসকাউন্ট অথবা তুমি যদি বিকাশে পেমেন্ট করো তাহলে ৪০% ডিসকাউন্ট

এই যে আপনি ওপেন করে বন্ধ করে দিলেন তার মানে ওরা আপনার বিহেবিয়ার বা আচরন ট্রাক করে ফেললো এর জন্য আপনাকে একটু এলার্ট করে দিলো মেসেজ দিয়ে এগুলোকে বলে In App Activity বা অ্যাপের মধ্যে যে কাজ হয় সেগুলো

Local Store Visit and Promotion 

যে সব বিজনেসের Local Store বা Physical Store আছে যেমনঃ KFC, Easy, CatsEye, Le Reve ইত্যাদি। আপনার একটা Local Store বা একটা দোকান আছে এবং আপনি চাচ্ছেন আপনার দোকানের এক বা দুই কিলোমিটারের কাছাকাছি যারা আছে তাদেরকে টার্গেট করবেন এবং ডিরেক্ট আপনার দোকানে এসে কেনাকাটা করুক এটা আপনি চাচ্ছেন তাহলে আপনি এই Local Store Visit and Promotion ক্যাম্পেইন সিলেক্ট করে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন

পোষ্ট ওভারভিউ

এখন যদি আমরা একটা পরিসংখ্যান চিন্তা করি - আমার একটা নতুন কম্পানি আছে তাহলে আমাকে কি করতে হবে? অবশ্যই আমি প্রথমে Brand Awareness ক্যাম্পেইন চালাবো তারপরে Brand Consideration ক্যাম্পেইন চালাবো এভাবে ফানেল তৈরি করতে হবে। বিসনেস যদি B2B হয় তাহলে Leads ক্যাম্পেইন চালাবো অথবা আমি ডিরেক্ট Sales এ চলে যাবো

তারমানে ফানেল টা এমন যে, প্রথমে Brand Awareness করে  Website Traffic নিয়ে আসলাম। এখন যে মানুষগুলো ওয়েবসাইটে এসে দেখে যাচ্ছে বা জেনে যাচ্ছে তাদেরকে সহজেই ট্রাক করতে পারছি এবার এই মানুষগুলোকে রি-টার্গেট করে Sales ক্যাম্পেইন চালাতে পারি। এতে করে আমার খরচ ও কমে গেলো পাশাপাশি ওই মানুষ গুলোকে নতুন করে টার্গেট করে অন্য সার্ভিসও তখন দিতে পারছি বা পারবো 

কিন্তু অনেক সময়ে এটা ঘটে না। কোন কিছু না বুঝেই আমরা মাঝে মাঝে ডিরেক্ট Sales ক্যাম্পেইন করে ফেলি, কেউ আমাকে চিনুক আর না জানুক। এক সময়ে 200$ - 300$ খরচ করার পরে Sale হয় মাত্র ৫ টা। এতে করে মাথায় হাত দেয়া ছাড়া উপায় থাকে না। এক্ষেত্রে আমাদের চিন্তা ভাবনা করেই এগুতে হবে 


🔊 আমার মতামত - জীবনের সব কিছুতেই কিছু থাকে উদ্দেশ্য এবং কিছু থাকে বিধীয় তাইনা। যেকোন ক্যাম্পেইন চালানোর আগে অবশ্যই ক্যাম্পেইনের গোল সম্পর্কে জানা উচিত। উপরের আলোচনা থেকে এটুকু এটলিস্ট বুঝতে পেরেছেন। ধন্যবাদ আপনাকে পুরো পোষ্টটি মনযোগ দিয়ে পড়ার জন্য

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Please validate the Captcha

নবীনতর পূর্বতন

যোগাযোগ ফর্ম